মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ঋণ প্রাপ্তি

১। এনজিও

২। দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন

৩।পল্লী উন্নয়ন বোর্ড

৪। যুব উন্নয়ন

(ক) যুব ঋণঃ-প্রশিক্ষিত যুবদের উদ্বুদ্ধকরণ ও প্রশিক্ষণ এর মাধ্যমে আত্মকর্মে নিয়োজিত করা হয় যাতে তারা স্বাবলম্বী হতে পারে। আত্মকর্মে নিয়োজিত হওয়ার জন্য প্রকল্প স্থাপনের নিমিত্তে শুধুমাত্র যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত যুবদের ঋণ সহায়তা প্রদান করা হয়ে থাকে। ঋণের শ্রেণী বিন্যাস নিম্নরুপঃ

(।)      প্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডঃ- একজন যুব/যুব মহিলাকে তার গৃহীত প্রকল্পের অকুকহলে ১০,০০০টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫০,০০০টাকা ঋণ প্রদান করা হয়ে থাকে।

(।।)       অপ্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডঃ- একজন যুব/যুব মহিলাকে তার গৃহীত প্রকল্পের অনুকহলে ৫,০০০টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৫,০০০টাকা ঋণ প্রদান করা হয়ে থাকে।

            সফল ঋণ পরিশোধকারীকে সর্বোচ্চ ৩ বার ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা আছে। ঋণ পরিশোধের মেয়াদ ১২ মাস থেকে ২৪ মাস পর্যন্ত। সর্বোচ্চ ৪মাসের গ্রেস পিরিয়ড প্রদান করা হয়ে থাকে। ঋণের সার্ভিস চার্জ ১০% যা ক্রমহ্রাসমান হারে প্রায় অর্ধেক।

যোগাযোগের ঠিকানাঃ-উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয়, সারিয়াকান্দি, বগুড়া। ।

(খ)      পরিবারভিত্তিক ঋণঃ- পারিবারিকঐতিহ্য রক্ষাসহ মানবিক মূল্যবোধ সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে পারিবারিকসম্প্রীতি, শ্রদ্ধাবোধ জাগিয়ে তোলার মাধ্যমে পরিবারকে উন্নয়নের একক হিসেবে প্রধান্য দিয়ে স্বীয় পরিবেশে স্বকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে এ কর্মসূচি পালিত হয়ে আসছে। কর্মসূচির আওতায় ৫ জন সদস্যকে নিয়ে ১টি গ্রুপ এবং ৮ থেকে ১০টি গ্রুপ নিয়ে ১টি কেন্দ্র গঠন করা হয়। প্রতি গ্রুপের একজন গ্রুপ প্রধান এবং প্রতি কেন্দ্রে একজন কেন্দ্র প্রধান থাকেন। কেন্দ্রের প্রতি সদস্য১ম দফায় ৮০০০টাকা,২য় দফায় ১০,০০০টাকা, ৩য় দফায় ১২,০০০টাকা, ৪র্থ দফায় ১৪,০০০টাকা এবং ৫ম দফায় ১৬,০০০টাকা ঋণ প্রদান করা হয়ে থাকে। সফল ঋণ পরিশোধকারী প্রতি গ্রুপ/পরিবারের ১ জনকে প্রয়োজনে মাত্র একবার ৩০,০০০টাকা থেকে ৫০,০০০টাকা পর্যন্ত এন্টারপ্রাইজ ঋণ প্রদান করা হয়ে থাকে। ঋণের সার্ভিস চার্জ ক্রমহ্রাসমান হারে ৫% যা ঋণ পরিশোধের পর শেষ ২ কিস্তিতে পরিশোধযোগ্য

৫। সমাজ সেবা

৬।রাজশাহী ‍কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

সহ অন্যান্য দপ্তর ক্ষুদ্র ও মাঝারী ঋণ প্রদান করে এবং ব্যাংক গুলো ঋণ প্রদান করে থাকে।