মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সারিয়াকান্দি ইতিহাস

 

ভাষাতাত্বিক অঞ্চল অনুসারে বগুড়া জেলা বরেন্দ্র উপ-ভাষা অঞ্চলে হলেও সারিয়াকান্দি উপ-ভাষার দুটি প্রধান উপ-ভাষা পরিলক্ষিত হয়।যা বরেন্দ্রী ভাষা থেকে অনেকাংশে পৃথক। সারিয়াকান্দি সদর, উত্তর এবং পশ্চিম সারিয়াকান্দির উপ-ভাষা সামান্য ব্যতয় নিয়ে প্রায় অভিন্ন অন্য দিকে সারিয়াকান্দির দক্ষিণাঞ্চলে প্রচলিত উপ-ভাষায় ধ্বনি তাত্বিক ও রূপতাত্বিক পার্থক্য সুস্পষ্টভাবে প্রতিয়মান। আবার যমুনার চরাঞ্চলে বসবাসরত জনগোষ্ঠির ভাষার উচ্চারণের পার্থক্য থাকলেও তা বহুলাংশে বাংলা শিষ্ট ভাষার সাথে সংগতিপূর্ণ। সারিয়াকান্দিয় উপ-ভাষা হিসাবে যে আঞ্চলিক ভাষাটির কথা বলা হচ্ছে তা বরেন্দ্রী ও কামরূপী সংমিশ্রিতরূপের সীমা পরবর্তী ভাষা। এই ভাষার সাথে বগুড়ার পার্শ্ববর্তী অঞ্চল, চাপাঁইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও নওগাঁর ভাষার যেমন কিছু কিছু মিল আছে তেমনি অমিল ও আছে। এ পার্থক্যগুলোতেই সারিয়াকান্দি ভাষার নিজস্ব বৈশিষ্ট ধরা পড়ে।